শিগগিরই সিদ্ধান্ত হবে ভারতে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স কত হবে


নয়াদিল্লি, ১৬ অক্টোবর- ভারতে মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স কত হওয়া উচিত, তা শিগগিরই ঠিক করে দেবেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আজ বিশ্ব খাদ্য দিবসের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় মোদি বলেন, “আমাদের দেশের মেয়েদের বিয়ের বয়স নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। আমাদের মেয়েরা জানতে চেয়েছে কমিটি কী সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওরা চিঠি লিখে জিজ্ঞেস করেছে আমাকে। সরকার এই বিষয়ে কাজ করছে। খুব তাড়াতাড়ি সিদ্ধান্তের কথা জানানো হবে।”

স্বাধীনতা দিবসের ভাষণেও তিনি বলেছিলেন, মেয়েদের বিয়ের বয়স কত হওয়া উচিত তা নিয়ে দেশজুড়েই সমীক্ষা চলছে। কমিটিও গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটির সুপারিশ মেনে খুব দ্রুত এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে কেন্দ্রীয় সরকার।

আরও পড়ুন:  পাকিস্তানে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ১৪

ভারতে এখন মেয়েদের বিয়ের ন্যূনতম বয়স ১৮ বছর। পুরুষদের ২১ বছর। এই দুয়ের ফারাক ঘোচানো যায় কি না, সে দাবি আগেও উঠেছিল। ‘সারদা আইন (১৯২৯)’ সংশোধন করে ভারতে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৫ থেকে বাড়িয়ে ১৮ বছর করা হয়েছিল। তবে প্রসূতি মৃত্যুর হার কমানো ও মহিলাদের পুষ্টি সরবরাহের দিকে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য এই বিষয়ে ফের পর্যালোচনা করার দাবি উঠেছিল ভারতজুড়েই।

অনেকসময়েই মানসিকভাবে প্রস্তুত হওয়ার আগেই মেয়েদের বিয়ে দিয়ে দেওয়ার রেওয়াজ আছে দেশের অনেক জায়গাতেই। পরিণত হওয়ার আগেই মাতৃত্বের মতো গুরুদায়িত্বের বোঝাও চাপিয়ে দেওয়া হয় মেয়েদের ওপর। তাই এই বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে পুনর্বিবেচনা করার চিন্তাভাবনা করছিল মোদি সরকারও।

মেয়েদের বিয়ের বয়স সংক্রান্ত বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য গত জুন মাসে রাজনীতিবিদ তথা সমাজকর্মী জয়া জেটলির নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করেছিল কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রণালয়। মেয়েদের বিয়ের বয়সের পরিবর্তন প্রয়োজন আছে কি না, বিভিন্ন দিক খতিয়ে দেখে তা নিয়ে রিপোর্ট দেওয়ার কথা এই কমিটির। দশ সদস্যের এই কমিটিতে নীতি আয়োগের সদস্য ভি কে পল ছাড়াও রয়েছেন স্কুলশিক্ষা, উচ্চশিক্ষা, স্বাস্থ্য, নারী ও শিশুকল্যাণ সচিবরা। মাতৃত্বের বয়স, মহিলাদের পুষ্টি ও স্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিষয়ে খতিয়ে দেখা এবং প্রসূতির মৃত্যুর হার কমানো, ইত্যাদি না বিষয়ে নজর রেখে রিপোর্ট তৈরি করার কথা এই কমিটির।

সূত্র: দ্য ওয়াল

আর/০৮:১৪/১৬ অক্টোবর





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *