কম বয়সেই কোটি কোটি টাকার মালিক তারা – DesheBideshe


প্রতিভা, পরিশ্রম এবং কাজের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে অনেকেই জীবনে প্রচুর সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষেরই সেই ভাগ্য হয় না।

অথচ কেউ আবার জন্ম থেকেই পারিবারিক সূত্রে বিশাল সম্পত্তির মালিক হয়ে ওঠে। সেসব বাচ্চাদের একজন প্রিন্স জর্জ আলেকজান্ডার লুইস। বয়স সবে সাত বছর। এই বয়সেই তার মোট সম্পত্তি ৩০০ কোটি ডলার।

রাজ পরিবারের খুদে লুইস ডিউক অব কেমব্রিজ প্রিন্স উইলিয়াম ও ডাচেস অব কেমব্রিজ ক্যাথরিনের সন্তান। সে এই বয়সেই বিশ্বের অন্যতম ধনী।

প্রিন্সেস শার্লট। প্রিন্স উইলিয়াম ও ক্যাথরিনের মেয়ে। আলেকজান্ডার লুইসের বোন। বয়স পাঁচ বছর। এই বয়সেই তার মোট সম্পত্তি অনেক বড় কম্পানির কয়েক গুণ বেশি। ছোট্ট শার্লট এরই মধ্যে পাঁচশ কোটি ডলারের মালিক।

ড্যানিয়েলিন হোপ মার্শাল ব্রিকহেড। যুক্তরাষ্ট্রের মডেল এবং অভিনেতা অ্যানা নিকোলে স্মিথের মেয়ে। ড্যানিয়েলিনের বয়স যখন এক বছর তখন তার মা অ্যানা মারা যায়। তারপর মায়ের বিপুল সম্পত্তির মালিক হয়েছে সে।

পাশাপাশি ৬ বছর বয়স থেকেই মডেলিং করে সে। অনেক টিভি শো-তেও তাকে দেখা যায়। মাত্র ১৪ বছর বয়সেই সে ৩০ লাখ ডলারের মালিক।

নক্স ও ভিভিয়েন জোলি পিট। অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিটের যমজ সন্তান। জন্মের আগেই তার ছবি বিক্রি হয়েছিল ১৪০ লাখ ডলারে।

সেলিব্রিটি বাবা-মার এই ছেলে-মেয়ের বয়স হয়েছে ১২ বছর। এই বয়সেই ৬ কোটি ৭৫ লাখ ডলারের মালিক তারা।

ভ্যালেন্টিনা পালোমা পিনল্ট। ১৩ বছরের ভ্যালেন্টিনা মেক্সিকান-আমেরিকান অভিনেত্রী সালমা হায়েক ও ফরাসি কোটিপতি ফ্রানকোইজ অঁরি পিনল্টের মেয়ে। বাবা-মা দু’জনেরই অগাধ সম্পত্তি। ভ্যালেন্টিনা বর্তমানে এক কোটি ২০ লাখ ডলারের সম্পত্তির মালিক।

রায়ান কাজি। ৯ বছরের এই ইউটিউবার বিভিন্ন খেলনার রিভিউ করে। ৩ বছর বয়স থেকেই এই কাজ শুরু করেছিল সে। তার পর আর ফিরে তাকাতে হয়নি। বর্তমানে ‘রায়ান ওয়ার্ল্ড’ চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার আড়াই কোটির বেশি। ইউটিউবের সূত্রে জনপ্রিয়তার পাশাপাশি এসেছে অর্থও। বর্তমানে সে ১০ কোটি ডলারের মালিক।

আরও পড়ুন:   কোকা-কোলার ২০টি ব্যতিক্রমী ব্যবহার

ব্লু আইভি কার্টার। আট বছরের আইভি গায়ক-গায়িকা জেজে ও বিয়োন্সের কন্যা। আইভি নিজেও গান গাওয়ার চেষ্টা করছে। তার সম্পত্তির পরিমাণ ৪০ লাখ ডলারে উন্নীত হয়েছে।

মোজিয়া ব্রিজেস। ১৫ বছরের এই কিশোর ‘মো’জ বোজ’ নামে বো টাই প্রস্তুতকারক সংস্থার সিইও। ছোটবেলায় বো টাই কিনতে গিয়ে পছন্দ হত না তার। দাদির কাছ থেকে টাই বানানো শিখে নিজেই খুলে ফেলে একটি সংস্থা। এখন তার সম্পত্তির পরিমাণ ১০ লাখ ডলার।

ইভান হেরদিগ্রাম। ১৫ বছরের এই কিশোর নিজের ইউটিউব চ্যানেল শুরু করেছিল ৫ বছর বয়সে। খেলনার রিভিউ ও গেমিং-এর ভিডিও পোস্ট করত সে। ১৯ লাখ ডলারের সম্পত্তি রয়েছে তার।

নর্থ, সেইন্ট, শিকাগো এবং স্লাম ওয়েস্ট। তাদের বয়স যথাক্রমে ৭, ৪, ২, ১ বছর। এই চার ভাই-বোন কিম কার্দাশিয়ান ও কেনি ওয়েস্টের সন্তান। এদের প্রত্যেকের সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ডলার করে।

সূত্র : আনন্দবাজার

আর/০৮:১৪/২৫ অক্টোবর





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *